আত্মঘাতী চাষির স্ত্রীর বিধবা ভাতার ব্যবস্থা করলেন মন্ত্রী  স্বপন দেবনাথ

এবি ওয়েব ডেক্স, কালনা :  মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কালনায় আত্মঘাতী চাষীর বাড়িতে দেখা করলেন রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প,প্রাণীসম্পদ দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। শিবু মান্ডি (৬১) নামে মৃত ঠিকাচাষীর স্ত্রীর হাতে তিনি বিধবা ভাতার কাগজ তুলে দেন। পাশাপাশি তাদের সঙ্গে থাকা ছোট ছেলের বায়োডাটাও নেওয়া হয় বলে জানা যায়।  কৃষি দপ্তরে তার চাকরির ব্যবস্থা হতে পারে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য,কালনা ২ ব্লকের কল্যাণপুর পণ্চায়েতের রাহাতপুরের বাসিন্দা শিবু মান্ডি নামে আদিবাসী ওই বৃদ্ধ ঠিকাচাষী দেড় বিঘে জমিতে পিঁয়াজ চাষ করেছিলেন।এই কারণে ১৫ জন দিনমজুর তার কাছে প্রায় তিনহাজার টাকা মতো পারিশ্রমিক  পেতেন। কিন্তু ওই ঠিকাচাষীর যা টাকা  সবই সমবায় ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে ছিলো। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের কড়া ফতোয়ায় তিনি ওই টাকা সমবায় ব্যাঙ্ক থেকে তুলতে পারেননি।টাকা হাতে না পাওয়ায় দিনমজুরদের পারিশ্রমিক দিতে পারছিলেন না। দিনমজুরদের তাগাদার জ্বালা সহ্য করতে না পেরে সেই অবসাদে কালনার ওই ঠিকাচাষী গত সোমবার  বাড়ির পাশে গলায় দড়ি লাগিয়ে আত্মঘাতী হোন। এই খবর পেয়ে সোমবার সন্ধ্যা নাগাদ ওই ঠিকাচাষীর পরিবার-পরিজনদের সঙ্গে দেখা করেন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।  মুখ্যমন্ত্রীর কানে ওই সংবাদ যাওয়া মাত্র ওইদিনই তিনি ট্যুইট করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এরপরই তড়িঘড়ি স্বপন দেবনাথের কাছ নির্দেশ আসে ওই পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে যথাসম্ভব  সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য।এরপরই স্বপনবাবু ওই ঠিকাচাষীর হাতে বিধবা ভাতার কাগজ তুলে দেন। আগামী ডিসেম্বর মাস থেকেই ওই ভাতার টাকা পাবেন।ওই ঠিকাচাষীর সঙ্গে থাকা ছোট ছেলে মিলন মান্ডির যে কোন দপ্তরে চাকরী যাতে হয় সেইকারণে তার বায়োডাটা এদিন স্বপনবাবু নেন।পাশাপাশি যে তিনহাজার টাকার কারণে ঠিকাচাষীর মৃত্যু সেই তিনহাজার টাকা কালনা ২ ব্লকের তৃণমূল সভাপতি প্রণব রায় ওই পরিবারের হাতে তুলে দেন। অন্যদিকে মন্ত্রী  স্বপন দেবনাথ বলেন কালনার এই ঘটনা খুবই মর্মান্তিক ।  মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ওই পরিবারের কাছে এসেছি।এই পরিবারকে বাঁচাতে ওনার বিধবা ভাতা চালু করা হলো।আগামীদিনে এই পরিবারের আরো কিছু করা যায় সেই বিষয়টিই আমরা দেখছি।

Leave a Reply