কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় গৃহবধূর মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বৃদ্ধের বিরুদ্ধে

আমার বাংলা ডেক্স ,গলসি :এক গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিলেন পাড়ার এক বৃদ্ধ। কিন্তু ওই গৃহবধূ রাজী না হওয়ায় গৃহবধূর মেয়েকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষনের অভিযোগ উঠলো ওই বৃদ্ধের বিরুদ্ধে। বর্ধমানের গলসি থানার  ভুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের সত্যানন্দপুর এলাকায় আট বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। অভিযুক্তের নাম জীবন কৃষ্ণ অধিকারী। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে।এদিকে অভিযুক্ত বৃদ্ধের ফাঁসির দাবিতে সরব হয়ে গ্রামে হাতে পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাসীরা। পোস্টারে লেখা ছিল শিশু ধর্ষণের শাস্তি চাই, ধর্ষণ কারীর শাস্তি চাই।

ওই শিশুর মায়ের অভিযোগ বেশ কিছুদিন ধরে ওই বৃদ্ধ তাকে উত্যক্ত করছিল। ঘটনার কথা ওই মহিলা তার স্বামীকে জানালে ব্যাপারটা মিট্মাট হয়ে যায়। এই ঘটনার কিছুদিন পরে তার শিশু কন্যাকে খাবার ও খেলনার লোভ দেখিয়ে জীবন কৃষ্ণ তার বাড়িতে তুলে নিয়ে যায়। পরে মেয়ের খোঁজ না পেয়ে তার মা খুঁজতে বেরোয়। দুপুরের দিকে ওই বৃদ্ধের বাড়ি থেকে মেয়ের খোঁজ পাওয়া যায়। মেয়েকে বাড়ি নিয়ে এসে স্নান করানোর সময় তিনি দেখেন তার মেয়ের সারা শরীরে কালসিটের দাগ ও শরীরে রক্ত  দেখে তিনি আঁতকে ওঠেন। পরে মেয়ের সাথে কথা বলে জানতে পারেন তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে ওই বৃদ্ধ। পরে জানাজানি হওয়ায় তারা প্রতিবাদ করলে ওই বৃদ্ধর ছেলে স্থানীয় তৃণমূল নেতা তাদের পঞ্চাশ হাজার টাকার বিনিময়ে বিষয়টা মিটিয়ে নেওয়ার কথা বলেন। এমনকি তাদের হুমকি দেয় যদি মিটিমাট না করেন তাহলে তাদের গ্রাম ছাড়া করে দেওয়া হবে। ওই মহিলার অভিযোগ তার সাথে নোংরামি করার চেষ্টা করেছিলেন জীবনকৃষ্ণ অধিকারী। কিন্তু তিনি প্রতিবাদ করায় তার মেয়ের উপর অত্যাচার করে প্রতিশোধ নিলো। স্থানীয় যুবক জানায় অভিজিৎ শিকদার বলেন গ্রামের এক বৃদ্ধ জীবন কৃষ্ণ অধিকারী গ্রামের এক গৃহবধুকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার পরে তিনি প্রতিবাদ করায় তার মেয়েকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। তার শাস্তির দাবিতে তারা গ্রামে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে।

Leave a Reply