চাঁদার জুলুম থেকে বাঁচতে  কারখানা বন্ধের হুমকি দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হচ্ছেন ম্যানেজার

এবি ডেক্স, দুর্গাপুর  :  জোর করে চাঁদার নামে তোলা আদায় করতে গিয়ে বাধা পাওয়ায় একটি বেসরকারি কারখানার আধিকারিকদের মারধরের অভিযোগ উঠলো দুর্গাপুরের এক তৃণমূল নেতার ভাইয়ের বিরুদ্ধে। অভিযোগ বিষয়টি জানিয়ে দুর্গাপুর থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে দুর্গাপুর থানার তরফে  ওই তৃণমূল নেতাকে ঘটনার কথা জানিয়ে দেয়। পরে শুধুমাত্র জেনারেল ডাইরি করে ফিরে যান আধিকারিকেরা। তবে তারা জানান এইভাবে তোলাবাজির পাশাপাশি তাদের মারধর করা হলে তারা কারখানা বন্ধ করে চলে যাবেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে দুর্গাপুরের ১ নং ওয়ার্ডের কমলপুর এলাকায় সার্প ফেরো অ্যালয় নামে একটা বেসরকারি কারখানায় উন্নত মানের ফ্যারো ম্যাঙ্গানিজ, ফ্যারো সিলিকন সহ অন্যান্য কাঁচামাল উৎপাদন করা হয়। সেই উন্নত মানের পন্য সামগ্রী রাশিয়া, ইউক্রেন, উজবেকিস্থান সহ বিদেশে রপ্তানি করা হয়। ওই কারখানায় কাঁচামাল কেনার সময় এমনিতেই তৃণমূল নেতাদের চাপ থাকে তাদের কাছ থেকে দ্রব্য সামগ্রী কেনাকাটা করার জন্য। না হলেই শুরু হয় জুলুমবাজি। এদিকে পুলিশ প্রশাসন তাদের সাথে থাকায় তারা প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। কারখানার এক আধিকারিক সঞ্জয় গড়াই বলেন এমনিতেই একটা দলীয় চাপ থাকে সিন্ডিকেট থেকে। এমনিতেই রঘুনাথপুর থেকে পন্য বোঝাই ট্রাক যখন কারখানার দিকে আসে সেই সময় আট থেকে দশ জায়গায় বিল ছাপিয়ে কোথাও পঞ্চাশ কোথাও একশো টাকা বা তিনশো টাকা  দাবি করা হয়। তারা ভয়ে চাঁদা দিতে বাধ্য থাকে। পরে তারা মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেয় যাতে এই অচলাবস্থা কাটিয়ে তোলা যায়। ঠিক তারা কারখানা থেকে পঞ্চাশ টাকা চাঁদা দিয়ে দেওয়া হবে। এদিকে স্থানীয় একটা অঘ্রাণ কালীপুজো হয়। তারা চাঁদা দাবি করে। আজ বেলার দিকে তারা যখন কারখানায় যাচ্ছিলেন সেই সময় তাদের আধিকারিকদের রাস্তায় ফেলে মারধর করা হয়।  তাদের সন্দেহ তৃণমূলের মদতেই দুষ্কৃতীরা এই কাজ করেছে। তবে এইভাবে চলতে থাকলে তারা কারখানা বন্ধ করে দিয়ে চলে যাওয়ার কথা ভাববেন। কারখানার সিনিয়ার ম্যানেজার রাজেশ পুরুষোত্তম বলেন মূলত তৃণমূল নেতা অসীম নায়েক ও তার ভাই চাঁদার জন্য জুলুম করে আসছে। আর চাঁদা না দিলে তাদের মারধর করা হচ্ছে। এদিকে বিষয়টি জানিয়ে দুর্গাপুর থানায় অভিযোগদায়ের করা হলে থানার ওসি তাদের অভিযোগ না নিয়ে তৃণমূল নেতাকে ফোন করে। তবে বিষয়টি নিয়ে তারা মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হওয়ার কথা জানিয়েছেন।

 

Leave a Reply