তারাপীঠে মা তারাকে ভোগ দেওয়া হয় খিচুরি,মাছ, মাংস, ভাজা মিষ্টি, পায়েস

সব দেবীর উর্দ্ধে মা তারা। তাই তারাপীঠে কোন দেবী মূর্তি পুজোর চল নেই। মা তারাকে সামনে রেখেই সমস্ত দেবী মূর্তির পুজো করা হয় সিদ্ধপিঠ তারাপীঠে। অষ্টাদশ শতাব্দীর প্রথম দশক থেকে এই প্রথা চলে আসছে। শনিবার তাই মা তারাকেও শ্যামা রূপে পুজো করা হল। এদিন মায়ের নিত্য পূজার্চনার পাশাপাশি শ্যামা রূপে মায়ের বিশেষ আরাধনা করা হয়।

30-rampurhat-03-tarapith-e-pujo-dewar-jannyo-manuser-vir

শনিবার আর পাঁচটা দিনের মতো মা তারাকে ভোর বেলা স্নান করানো হয়। এরপরেই মা তারাকে অষ্টধাতুর মুখাভরন, মুণ্ডমালা, মুকুট, সোনার অলঙ্কার, শোলা ও ফুল মালা দিয়ে শ্যামা রূপে সাজানো হয়। এরপর শুরু হয় মঙ্গলারতি। মায়ের প্রথম পুজোর সঙ্গে দেওয়া হয় শীতলা ভোগ। আর পাঁচটা দিনের মতো এদিনও মায়ের নিত্যভোগ হয়। সন্ধ্যারতির আগে মা’কে পুনরায় ফুল মালা দিয়ে সাজানো হয়। মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় বলেন, “শ্যামা পুজোর শুভক্ষণে নাটোরের পুরোহিত এবং মন্দিরের পালাদার সেবাইত পুজোয় বসেন। একদিকে চলে চণ্ডীপাঠ অন্যদিকে চলে পুজো। পুজো শেষে মায়ের  আরতির পাশাপাশি দ্বিতীয়বার ভোগ নিবেদন করা হয়। ভোগে পোলাও, খিচুড়ি, মাছ, মাংস, ভাজা মিষ্টি, পায়েস দেওয়া হয়”।

Leave a Reply