দাবিমতো অতিরিক্ত টাকা না দিতে চাওয়ায় প্রসূতিকে মারধর করলো আয়া, উত্তেজনা বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে

অরুণাভ নিয়োগী , বিষ্ণুপুর

বাচ্চা হওয়ার পর আয়ার অতিরিক্ত টাকা না দিতে পারায় শারীরিক নির্যাতনের শিকার  হলেন  এক প্রসূতি।এমনটাই অভিযোগ ওই প্রসূতির পরিবারের।আয়ার অতিরিক্ত টাকা দিতে না পারায় এক প্রসূতিকে হাসপাতালে শারীরিক অত্যাচার করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে ওই আয়ার উপর।এমনকি প্রসূতিকে চোখে লঙ্কা ঘষে দিতে এবং সদ্যজাতকে খুন করতে উদ্যোত হয় ওই আয়া। ঘটনাটি ঘটেছে খোদ  বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে। ওই প্রসূতির নাম খেলেদা বিবি। বাড়ি গড়বেথা থানার বনকাটিতে। বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ দায়ের হয়েছে বিষ্ণুপুর থানায়।

স্থানীয়দের অভিযোগ ,বেশ কয়েক বছর ধরে বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে আয়াদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ প্রসূতির পরিবারের লোকেরা।প্রতিদিন অত্যাচারিত হতে হয় প্রসুতিদের।এই নিয়ে প্রসূতির পরিবারের লোকজনেরা অভিযোগও জানিয়েছে হাসপাতালে।কিন্তু কোন লাভই হয়নি।আজ এই ঘটনাতে হাসপাতাল চত্বরে চাঞ্চাল্য ছড়িয়ে পড়ে।আয়া ও প্রসূতির পরিবার দুই পক্ষই হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ এসে অবস্থার সামাল দেয়।

সদ্যজাতের বাবা গোফুর খান বলেন, “ওই আয়া আমাদের কাছে ৬০০টাকা চাইছিল কিন্তু আমরা ৪০০টাকা দিতে গেলে সে নিতে চায় নি।আমরা যখন ছিলাম না তখন আমার স্ত্রীকে মার ধোর করে। ছেলেকে ফেড়ে দেব বলে,খুনের হুমকি দেয়। আমরা এই বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ করেছি।” সদ্যজাতের মা খালেদা বিবি বিলেন , “ওই আয়া বলছে যে টাকা যদি না দিবি চোখে লঙ্কা গুড়ো দিয়ে দেব।ছেলেকেও ছেড়ে কথা বলব না।আমি বাড়ির লোককে জানিয়ে দেব বলাতে আমাকে মারতে থাকে।”

Leave a Reply