পুলিশি নজরদারি না থাকায় দীঘা ও মন্দারমণির পরিবর্তে  উদয়পুর সি-বিচে কীভাবে চলছে নেশা,  দেখুন ক্লিক করে

জাহাঙ্গীর বাদশা, উদয়পুর: সমুদ্র সৈকতে বসে সমুদের সামুদ্রিক মাছভাজা তার সঙ্গে নামিদামি ব্যান্ডের সুরা নিয়ে জমিয়ে আড্ডার আসর না বসলে ভ্রমণটাই বৃথা  এমনটাই  মনে করেন অধিকাংশ পর্যটক। এর এই নেশার কারনেই প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা মৃত্যুর খবর শিরোনামে উঠে আসছে। সম্প্রতি কয়েক মাস আগে নেশা করে মন্দারমণি সি-বিচে  গাড়ি চালিয়ে তিন ছাত্রের মৃত্যু সেই সাথে নেশা করে সমুদ্রে স্নান করতে নেমে দীঘা ও মন্দারমনিতে মৃত্যুর ঘটনা অবাহত। মন্দারমণি ও দীঘায় পর পর ছাত্র মৃত্যুর ঘটনায় শিরোনামে উঠে আসে দীঘা ও মন্দারমণির পর্যটনকেন্দ্রের মৃত্যুর ঘটনা। ফলে প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। মন্দারমণি ও দীঘাতে যাতে অবৈধ নেশার ঠেক গড়ে ওঠে এবং বিক্রি না হয় তার জন্য কড়া নজদারির মধ্যে রাখে জেলা পুলিশ। মন্দারমণি ও দীঘার দিকে পুলিশের নজর থাকায় তাই পর্যটকরা এখন নেশার আসর হিসেবে উদয়পুর সি-বিচকেই বেছে নিয়েছে। কারণ এখানে নেই কোন পুলিশ নজরদারি।

whatsapp-image-2016-12-07-at-09-45-56

তাই মদ্যপায়ীরা দেদার নেশায় চুর হয়ে ফুর্তি করা জন্য উদয়পুরকে বেছেনিয়ে ভীড় জমাচ্ছে। উদয়পুর  সি-বিচের আশাপাশে ঝুড়িতে চলছে দেদার নেশার আসর। উদয়পুর সি- বিচ বাংলা ও ওড়িষার সীমান্ত এলাকা হওয়ায় এলাকাটি নজরদারির অভাব সেই সাথে নেই পুলিশি ধড়পাকড়। ফলে মদ্যপায়ীরা জটিয়ে নেশার আসর বসিয়ে চিলেছে। তবে এই এলাকায় সেই ভাবে পর্যটকদের ভীড় ছিল না। বর্তমান সময়ে মন্দারমণি ও দীঘায় পুলিশের ধড়পাকড়ের ফলে নিরাপদ জায়গা হিসেবে উদয়পুর  সী-বিচকে বেছে নিয়েছে পর্যটকরা। তবে যেভাবে পর্যটকরা নেশায় মেতে উঠেছেন তাতে করে শীঘ্রই মন্দারমণি,  দীঘার পাশাপাশি উদয়পুরেও প্রশাসনিক কড়া নিরাপত্তায় ঘিরে রাখার ব্যবস্থা না করলে এবার উদয়পুর খবরের শিরোনামে উঠে আসবে বলে ধারণা পর্যটকদের একাংশের।

Leave a Reply