বালি বোঝাই ডাম্পারের ধাক্কা বাইকে, মৃত চার, ডাম্পারে আগুন, রাস্তা অবরোধ

বালি বোঝাই  ডাম্পারের সাথে মোটর বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে মৃত্যু হলো একই পরিবারের চারজনের। মৃতদের মধ্যে দুজন শিশু আছে। ঘটনার জেরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বর্ধমানের মঙ্গলকোট। ঘটনার পরেই উত্তেজিত জনতা ঘাতক ডাম্পারে আগুন ধরিয়ে দেয়। এদিকে ডাম্পার চালক পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে ধরে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এদিকে পুলিশ দেহ গুলি দ্রুত উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানোর চেষ্টা করলে পরিস্থিতি আরো অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। উত্তেজিত জনতা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে মঙ্গলকোট থানা ঘেরাও করার পাশাপাশি রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়।

dscn5274

পুলিশ জানিয়েছে মৃতদের নাম আসলাম মোল্লা (৬) , আসরুফি খাতুন ( ৭) , সাইফুল শেখ (২৩) ও ইসমাতারা বিবি (২৮) । এদের মধ্যে সাইফুল শেখের বাড়ি ভাতারের নতুনগ্রাম । স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে , শুক্রবার সকালের দিকে  সাইফুল শেখ নামে এক যুবক তার দিদি, ভাগনা ও ভাগনিকে বাইকে চাপিয়ে  ভাতারের নতুনগ্রাম থেকে বাদশাহী রোড ধরে মঙ্গলকোটের দিকে যাচ্ছিলেন।  বিপরীত দিক থেকে সেই সময় একটি বালি বোঝাই ডাম্পার ভাতারের মুরাতিপুরের দিকে আসছিল । বাদশাহী রোডের পাশে বক্সীনগর গ্রামের মোড়ের কাছে ডাম্পারটি মুখোমুখি ওই বাইকটিকে সজোরে ধাক্কা মারে । সাইফুল ছিটকে গিয়ে ডাম্পারের পিছনের চাকার তলায় এসে পড়লে তার মাথা থেঁতলে যায় । ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় । এরপর বাইকটি ও বাকি ৩ আরোহী সহ ডাম্পারের সামনের চাকার যন্ত্রাংশের মধ্যে আটকে যায় । সেই অবস্থায় ৪ কিমি ছেঁচড়ে নিয়ে যায় ডাম্পারের চালক । এরপর নপাড়া গ্রামের মোড়ের কাছে  ডাম্পারটি থামিয়ে চালক ও খালাসি পালাবার চেষ্টা করলে গ্রামবাসীরা চালককে ধরে ফেলে । তাকে নপাড়া গ্রামের একটি ঘরে আটকে রাখা হয় ।জানা গেছে ইদুজ্জোহা উপলক্ষে ইসমাতারা তার ছেলে মেয়ে নিয়ে বাপের বাড়ি এসেছিলেন। এদিকে  পুলিশ দেহ গুলি দ্রুত উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানোর চেষ্টা করলে পরিস্থিতি আরো অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। উত্তেজিত জনতা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে মঙ্গলকোট থানা ঘেরাও করার পাশাপাশি রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়।বাধ্য হয়ে পুলিশ দেহ গুলি ফের ঘুরিয়ে থানায় নিয়ে আসে। পরে পুলিশের আশ্বাসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

 

Leave a Reply