বাড়ি ভেঙে মৃত শিশু, আহত ছয়, আটক বাড়ির মালিক

 

বহু পুরোনো একটি কাঁচাবাড়ি ভেঙ্গে পড়ায় ১শিশুর মৃত্যু সহ ৬জন গুরুতর জখম হলেন। ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমানের কালনা শহরের ২নং ওয়ার্ডের ডাঙ্গাপাড়ায়।গুরুতর জখম ৬ জনকে আহত অবস্থায় কালনা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেছেন স্থানীয়রা।খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে যান কালনার বিধায়ক ও পুরপ্রধান।এই ঘটনায় ওই বাড়ির মালিককে আটক করেছেন কালনা থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে ১৩ মাসের শিশু রাহুল রাজবংশীকে নিয়ে একই পরিবারের ৭জন ওই বাড়িতেই ঘুমোচ্ছিলেন।গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন অবস্থায় রাত ১:৩০ নাগাদ হঠাৎই হুড়মুড়িয়ে বাড়ীটি ভেঙ্গে পড়লে সকলেই চাপা পড়ে যান।আচমকা জোর আওয়াজে প্রতিবেশী লোকজন উঠে পড়েন ও বাড়ির বাইরে বেরিয়ে উদ্ধারকাজে হাত লাগান।চাপা পড়ে থাকা  পুরুষ ও মহিলা সদস্যদের উদ্ধার করেন তারা। জানা গেছে , প্রায় ৫০-৬০ বছর শঙ্কর দে-র বাড়িতে ভাড়া থাকতেন ভাড়াটে নিতাই বিশ্বাস ও তার পরিবার।সঙ্গে থাকতেন নিতাইবাবুর শাশুড়ি মঙ্গলা দত্ত,স্বামী পরিত্যক্তা মেয়ে প্রভাতী রাজবংশী ও তার শিশুপুত্র রাহুল।বাড়িটি দীর্ঘদিন ধরে খারাপ অবস্থায় থাকলেও ওই বাড়ির মালিক শঙ্কর দে বাড়িটি নিজে মেরামতি করেননি ভাড়াটেদেরও করতে দেননি বলে অভিযোগ।টালির ছাউনি দেওয়া জরাজীর্ণ বাড়িটি সারানো নিয়ে মালিক ও ভাড়াটের সঙ্গে অশান্তি চলছিলো  দীর্ঘদিন ধরে।ভাড়াটে নিতাই বিশ্বাস বাড়িটি সারানোর জন্য ইমারতি দ্রব্য আনলেও তাকে কিছুই করতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।অন্যদিকে পাল্টা অভিযোগের সুর মালিক পক্ষের।তাদের অভিযোগ স্থানীয় প্রশাসন টাকার বিনিময়ে জায়গা সহ বাড়িটি কিনে নেওয়ার কথা ওই ভাড়াটেদের বললেও তারা রাজি হোননি।এই নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনকে মধ্যস্থতাকারী হিসাবে রেখে অনেকবার আলোচনা হলেও সমাধানের রাস্তা বের হয়নি বলে জানা যায়।বর্ষায় অতিরিক্ত বৃষ্টির জেরে বহু পুরোনো কাঁচাবাড়িটি আরো দুর্বল হতে থাকে।অবশেষে এইদিন কাঁচাবাড়িটি ভেঙ্গে পড়লে বড়োধরনের দুর্ঘটনাটি ঘটে যায়।শিশুপুত্রর মৃত্যুতে শোকে আচ্ছন্ন হয়ে পড়েন মা প্রভাতী রাজবংশী।এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রতিবেশীরা।খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে যান কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুন্ডু ও পুরপ্রধান দেবপ্রসাদ বাগ তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

Leave a Reply