বোমাবাজিতে উত্তপ্ত জামুড়িয়া , প্রতিবাদে থানা ঘেরাও

আমার বাংলা ডেক্স, জামুড়িয়া : একটি বেসরকারি সংস্থার জলের রিজার্ভার তৈরিকে কেন্দ্র করে বালি সরবরাহকে  কেন্দ্র করে  দুই গোষ্ঠীর বচসার জেরে  বোমাবাজিতে  উত্তপ্ত হয়ে উঠলো বলে অভিযোগ জামুড়িয়ার বীরকুলটি গ্রাম এলাকা । ঘটনায় এক ব্যাক্তিকে পুলিশ আটক করেছে। ঘটনার প্রতিবাদে  আজ জামুড়িয়া থানা ও এলাকায় বিক্ষোভ দেখায় গ্রাম রক্ষা কমিটির সদস্যরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরেই জামুড়িয়ার বীরকুলটি এলাকায় একটি বেসরকারি ইস্পাত সংস্থা জলের রিজার্ভার তৈরির কাজ শুরু করেছিল। স্থানীয় গ্রামবাসীদের দাবি ছিল সেখানে কাজ করতে হলে গ্রামের উন্নয়ন করতে হবে। ফলে বেঁকে বসে বেসরকারি সংস্থাটি। তারা মৌখিক কিছু উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেয়। এরপরেই গ্রামবাসীরা গ্রাম রক্ষার জন্য গ্রাম রক্ষা কমিটি গঠন করে তেরো দফা দাবিতে বিক্ষোভ দেখিয়ে সেই রিজার্ভার তৈরির কাজ বন্ধ করে দেয়। গ্রাম রক্ষা কমিটি দাবি করে স্থানীয়  বেকারদের চাকরি দিতে হবে। যারা জমি দিয়েছে তাদের জমির ন্যায্য পাওনা সহ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এছাড়া  রাস্তাঘাট মেরামত, পুকুর সংস্কার, মন্দির সংস্কার, খেলার মাঠ সংস্কার সহ বিভিন্ন দাবি দাওয়া করে।গ্রাম বাসীরদের বিক্ষোভের জেরে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এদিকে গতকাল বুধবার বেলার দিকে ওই রিজার্ভার নির্মাণের জন্য কারখানার সাথে যোগসাজশ করে একটি ঠিকাদারি সংস্থা বালি ঢালার কাজ শুরু করে। ফলে গ্রামবাসীরা ফের বাধা দেয়। এদিকে বুধবার গভীর  রাতের  দিকে  ওই গ্রামে ব্যাপক বোমাবাজি শুরু হয়। বোমের আওয়াজে গ্রামবাসীরা উঠে পড়লে মঙ্গল রুইদাস নামে একজনকে ধরে ফলে। তাকে মারধর করে জানতে পারে স্থানীয় ঠিকাদার রামপ্রসাদ মন্ডলের নির্দেশেই সে বোমা ছুঁড়ছিল। তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।  প্রতিবাদে আজ বেলায় গ্রাম রক্ষা কমিটির তরফে গ্রামে বিক্ষোভ দেখিয়ে জামুড়িয়া থানা ঘেরাও করে প্রতিবাদ জানায় তারা।  গ্রাম রক্ষার কমিটির সভাপতি ষষ্ঠী মুখার্জী  জানায় আমাদের ভয় দেখানোর জন্য বোমাবাজি করে ওই ঠিকাদার।অথচ পুলিশ  নিস্ক্রিয়। পরে পুলিশ তদন্তের নির্দেশ দিলে বিক্ষোভ উঠে যায়।

Leave a Reply