মন্তেশ্বর উপনির্বাচন নিয়ে অভিযোগ জমা পড়লেই সাথে সাথে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস জেলা শাসকের  

আমার বাংলা নিউজ ডেক্স ঃ  মন্তেশ্বর উপনির্বাচন নিয়ে কোনো অভিযোগ জমা পড়লেই দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দিল জেলা প্রশাসন  । মন্তেশ্বর বিধানসভার উপনির্বাচনকে সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রতিটি বুথেই ভিডিও ক্যামেরা এবং সিসিটিভি রাখা হবে বলে জানালেন জেলা নির্বাচন আধিকারিক তথা জেলাশাসক সৌমিত্র মোহন। মঙ্গলবার জেলাশাসকের কনফারেন্স রুমে এই উপনির্বাচন সংক্রান্ত এক সাংবাদিক বৈঠকে জেলাশাসক জানান, ২৬ অক্টোবর থেকে মনোনয়ন পত্র দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে । এদিন নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয় । আগামী ২ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। ৩ নভেম্বর হবে স্ক্রুটিনি এবং ৫ নভেম্বর মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করার শেষ দিন।

ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দল প্রচার শুরু করে দিয়েছে। প্রচারকে কেন্দ্র করে এবং এই নির্বাচনকে সুষ্ঠ ভাবে রূপায়িত করতে মানুষের অভিযোগ এবং মানুষের সুবিধা সংক্রান্ত অনলাইনে অভিযোগ করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ইতিমধ্যেই দুটি অভিযোগ জমা পড়েছে। এবং অভিযোগ দুটি ২৪ ঘন্টার মধ্যে সমাধানও হয়ে গেছে। পাশাপাশি সুবিধা সংক্রান্ত ব্যবস্থাপনায় ১০ টি মতামত জমা পড়েছে। জেলাশাসক জানান, আগামী ১৯ নভেম্বর ভোট। কালনা কলেজে গণনা হবে ২২ নভেম্বর। ২৪ নভেম্বরের মধ্যে ভোট সংক্রান্ত সমস্ত রিপোর্ট দেওয়া শেষ হয়ে যাবে। এই কেন্দ্রের ২০৯ টি বুথ কেন্দ্রের মধ্যে  মোট বুথ ২৭৩ টি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে। মোট ভোটার রয়েছে ২১৮৪৭৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১১২৫৪১ জন ও মহিলা ভোটার ১০৫৬৯৪ জন। জেলাশাসক আরো জানান গত বিধানসভা নির্বাচনে  নির্বাচন সংক্রান্ত যে সব বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছিল যেমন, একশো মিটারের মধ্যে কোনো রাজনৈতিক দলের বুথ থাকবে না,  একসঙ্গে জটলা করা যাবে না, এলাকায় বাইরের লোক প্রবেশ করা নিষেধ, মোটর বাইক নিয়ে বাইক র‍্যালি করা যাবে না।মিটিং মিছিলের জন্য অনুমতি নিতে হবে, যে কোনো অভিযোগ জানানোর সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যা ইতিমধ্যেই গ্রহণ করা হয়েছে। এই সাংবাদিক বৈঠকে জেলা পুলিশ কুনাল আগরওয়াল বলেন, এই উপনির্বাচন উপলক্ষে গতকাল রাত থেকে নাকা চেকিং শুরু হয়ে গেছে।  ডিস্ট্রিক কন্ট্রোল রুমও খোলা হয়েছে।

Leave a Reply