যৌনকর্মীকে স্ত্রীকে সন্দেহের বশে গলা কেটে খুন করলো স্বামী

মঞ্জু বাদ্যকর পেশায় যৌনকর্মী। ঠিকানা আসানসোলের কুলটির চবকা পল্লি একাকায়। মঞ্জুর সাথে অন্য কারো সাথে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক আছে এই অভিযোগে তাকে গলা কেটে খুন করলো তার স্বামী গণেশ বাদ্যকর। পুলিশ আজ গণেশ বাদ্যকরকে গ্রেফতার করেছে।

সোমবার ছিল চবকা পল্লি এলাকায় বিশ্বকর্মা বিসর্জনের দিন। ফলে সন্ধে থেকেই ডিজের মিউজিক ও ঢাকের আওয়াজে কান পাতা দায় হয়ে উঠেছিল। গণেশ ছিল সন্ধে থেকেই মদ খেয়ে রীতিমতো টলমলে। রাতে বিসর্জনের পরে রাত প্রায় সাড়ে এগারোটা নাগাদ গণেশ বাড়ি ফিরে আসে। ফিরে আসার পরে মঞ্জুর কাছে ভাত খেতে চায় । কিন্তু ভাত না পেয়ে শুরু হয় অশান্তি। এরপর সারারাত স্বামী স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি চলার পরে ভোর নাগাদ অশান্তি চরমে পৌছালে স্থানীয়রা গিয়ে দেখে গোঙানির আওয়াজ। এরপর স্থানীয়রা দরজায় ধাক্কা দিলে গণেশ দরজা খুলে দেয়। তখন তারা দেখে মঞ্জু মাটিতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।

4

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে বেশ কিছুদিন ধরেই মঞ্জুর সাথে গণেশের বনিবনা হচ্ছিল না। গণেশ তার বন্ধু মহলে জানিয়েছে যে তার স্ত্রীর সাথে অন্য যুবকের সম্পর্ক আছে। এদিকে তাদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে গণেশ অন্য জায়গায় এক মহিলাকে বিয়ে করে রেখে এসেছে। যার জেরেই গণ্ডগোলের সূত্রপাত। মঞ্জু তার স্বামীর কাছে দাবি করেছিল তাদের যে পাঁচ বছরের মেয়ে ও তিন বছরের ছেলে আছে তাদের দেখভাল তাহলে কে করবে। যার জেরেই এই অশান্তি চলতে থাকে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মঞ্জুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে খুন করেছে। গণেশকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Leave a Reply