রোগীর আত্মীয়ের সাথে বচসার অজুহাতে ডাক্তারদের কর্মবিরতির অভিযোগ , রোগীর মৃত্যু

আমার বাংলা ডেক্স ঃ রোগীর আত্মীয়ের সাথে বচসার জেরে সোমবার রাতের দিক থেকে মাঝরাত পর্যন্ত কর্মবিরতি করে জুনিয়ার ডাক্তারেরা। ঘটনার  জেরে এক রোগীর মৃত্যু হলো। এই ঘটনায় হাসপাতাল চত্বরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। খবর পেয়ে হাসপাতাল সুপার, মহকুমা পুলিশ আধিকারিকেরা হাসপাতালে গিয়ে জুনিয়ার ডাক্তারদের সাথে আলোচনায় বসেন। রাত প্রায় তিনটে নাগাদ উঠে যায় কর্মবিরতি।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে চিকিৎসা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সোমবার রাতের দিকে জুনিয়ার ডাক্তারদের সাথে বচসা বেঁধে যায় এক রোগীর আত্মীয়ের। ডাক্তারদের অভিযোগ ওই রোগীর আত্মীয় তাদের মারধর করেছে। এরপরেই নিরাপত্তার অভাব দেখিয়ে তারা কর্মবিরতি শুরু করে দেয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় ইমারজেন্সি বিভাগের  যাওয়ার রাস্তা। ঢুকতে দেওয়া হয়নি রোগী ও তার পরিবারের লোকেদের। মারমুখী হয়ে ওঠে জুনিয়ার ডাক্তারেরা। তারা গভীর রাতের দিকে চিকিৎসা করাতে আসা রোগীর আত্মীয়দের ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দেন। রোগীর আত্মীয়দের অভিযোগ সেই সময় হাসপাতালে বেশ কিছু সাপে কাটা রোগী থেকে শুরু করে দুর্ঘটনায় জখম, বিষ খেয়ে ভরতি হওয়া সহ বেশ কিছু মুমুর্ষু রোগী ভরতি ছিলেন। ফলে ঘন্টার পর ঘন্টা তারা কার্যত বিনা চিকিৎসায় পড়েছিলেন। এদিকে বিনা চিকিৎসায় মারা যান এক রোগী। রোগীর পরিবারের অভিযোগ ডাক্তারেরা কর্মবিরতি শুরু করায় বিনা চিকিৎসায় ওই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিকে রাত প্রায় আড়াইটা নাগাদ হাসপাতাল সুপার ডাঃ উৎপল দাঁ,  মহকুমা পুলিশ আধিকারিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে জুনিয়ার ডাক্তারদের সাথে আলোচনায় বসে সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন। পরে রাত প্রায় তিনটে নাগাদ জুনিয়ার ডাক্তারেরা কর্মবিরতি তুলে নেয়।

Leave a Reply