রোহিতের অপরাজিত সেঞ্চুরি, কুলদীপের স্পিনের ভেলকিতে হারল ইংল্যান্ড

আমার বাংলা ডেক্স, ১৩ জুলাই :

ইংল্যান্ড ২৬৮ (৪৯.৫ ওভার)

ভারত ২৬৯/২ (৪০.১ ওভার)

ফের রোহিতের অপরাজিত সেঞ্চুরি ১৩৭, কুলদীপ যাদবের ভয়ংকর স্পিন বোলিং (২৫/৬) । ভারত একদিনের ম্যাচে ইংল্যান্ড কে হারিয়ে দিল ৮  উইকেটে। টি-২০ ম্যাচে ২-১ এ ভারত সিরিজ জেতার পরে হার্দিক পান্ডিয়া মন্তব্য করেছিলেন রোহিতের কাছ থেকে আমরা এরকম ইংনিস আশা করি।সুনীল গাভাসকার তো আরো একধাপ উপরে উঠে বলেছিলেন, ‘ এটাই রোহিত শর্মা।ব্যাটে রান পেলে সমালোচকেরা তার প্রথম এগারোয় থাকা নিয়ে সরব হন।আর রোহিত ব্যাট হাতে তার জবাব দিয়ে দেন।’ এদিন ইংল্যান্ডের নটিংহামের ট্রেন্ট ব্রিজে  রোহিত ফের সেঞ্চুরি করে বুঝিয়ে দিলেন শুধু দেশের মাটিতে নয় বিদেশেও তিনি দলের অন্যতম ভরসা। যেহেতু আগামী বছরের এই সময়েই ইংল্যান্ডে বসবে বিশ্বকাপের আসর ফলে এই জয় ও ভারতীয় বোলার ও ব্যাটসম্যান দের দাপট কোহলিদের স্বস্তি দেবে।

অথচ এই ইংল্যান্ড দল ব্যাটিং এ যথেষ্ট শক্তিশালী।  ভারতের বিরুদ্ধে নামার আগে এই ইংল্যান্ড দল দুর্বল  অস্ট্রেলিয়াকে ৬-০ তে সিরিজ জেতে।

তবে ইংল্যান্ডে এখন গ্রীষ্মের জন্য পিচের সুবিধা তুলে নিয়েছে ভারত। উইকেট অনেকটাই মন্থর হওয়ায় স্পিনারেরা ভালোই টার্ন পাচ্ছেন। যেটা কাজে লাগিয়ে রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদব একাই শেষ করে দিয়েছেন ইংল্যান্ডকে।

ম্যাচের আগে রোহিত জানিয়েছিল রান তাড়া করতে তারা এখনও পছন্দ করেন। সেই মতো টসে জিততেই ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় কোহলির ভারত। রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদব একাই শেষ করে দেয় ইংল্যান্ডকে ( ১০-০-২৫-৬)।  এছাড়া উমেশ যাদব দুটি ও চহ্বল একটি ইউকেট নেন। ১০৫ রানে কুলদীপের দাপটে চার ইউকেট হারিয়ে কিছুটা হলেও চাপে পড়ে যায় ইয়ন মরগ্যানের দল। স্ট্রোকের ৫০ ও জস বাটলারের ৫৩ ইংল্যান্ডকে ২৬৮ রানে পৌঁছে দেয়। এই দুজনেও শেষ পর্যন্ত কুলদীপের বলেই আউট হন। তবে কুলদীপ ছাড়া উমেশ, সিদ্ধার্থ কৌলরা ব্যার্থ।  কুলদীপকে খেলতে পারলে এদিন ৩০০ গন্ডি পার করে দিতে পারত বাটলারেরা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে প্রথম থেকেই চালিয়ে খেলতে থাকেন রোহিত শর্মা। ১৫ টি চার, ৪ টে ৬ এর সাহায্যে ১১৪ বলে তিনি ১৩৭ রানে অপরাজিত থাকেন। তাকে সঙ্গ দেন অধিনায়ক কোহলি (৭৫ রান ) ও শিখর ধাওয়ান (৪০ রান)।  ভারত ৪০.১ ওভারে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে ২৬৯ রান তুলে ফেলে জয় নিশ্চিত করে। এই জয়ের ফলে কোহলি অধিনায়ক হিসেবে ৫০ ম্যাচে ৩৯ ম্যাচ জিতে ক্লাইভ লয়েড ও রিকি পন্টিং এর পাশে নিজের জায়গা করে নিলেন। অন্যদিকে রোহিতের অপরাজিত ১৩৭ রান ইংল্যান্ডের মাটিতে কোন ভারতীয় ব্যাটসম্যানের একদিনের ম্যাচে সর্বোচ্চ রান।  এই জয়ের ফলে তিন ম্যাচের সিরিজে ভারত ১-০ ফলে এগিয়ে গেল।দ্বিতীয় ম্যাচ ১৪ জুলাই।

ছবি-গেটি ইমেজেস