সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ প্রচারের পরে খোদ দুর্ঘটনায় পুলিশের গাড়ি

রাজ্য সরকারের সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ সচেতনতা মূলক প্রচারে এবার দুর্গাপুজোয় প্রচারের আলোতে নিয়ে আসে পুজো কমিটিগুলি। তাতে যেমন জনবহুল এলাকায় ধীরে চলো নীতি নেওয়ার জন্য গাড়িগুলির কাছে আবেদন রাখা হয়েছে তেমনি মোটর বাইক চালক ও আরোহীদের  হেলমেট পড়ে  চলাফেরার জন্য আবেদন রাখা হয়েছে। এছাড়া কারে সিট বেল্ট , গাড়ির কাগজপত্র গাড়িতে রাখা, ড্রাইভিং লাইসেন্স রাখা জরুরি বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এত সব সত্ত্বেও নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে প্রাইভেট কার থেকে শুরু করে মোটর বাইক রুদ্ধশ্বাসে ছুটছে শহরের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্তে।

এবার খোদ দুর্ঘটনার মুখে পড়লো পুলিশের গাড়ি। লক্ষ্মী পুজোর আগের দিন আজ শুক্রবার নবাব হাট মোড়ে পুলিশের গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। ফলে তিনজন পুলিশকর্মী গুরুতর জখম হওয়ায় তাদের বর্ধমান মেডিকেল কলেজে ভরতি করা হয়েছে।

img-20161014-wa0030

বর্ধমান থানা সূত্রে জানা গেছে এদিন পুলিশের গাড়িটি  গুসকরার দিকে যাচ্ছিল। পথে নবাবহাট মোড়ে দুর্গাপুর থেকে বর্ধমানের দিকে আসা  একটি চারচাকা গাড়ি এসে সজোরে পুলিশের গাড়ির বাঁদিকের পিছনের চাকায় ধাক্কা মারে।  ফলে তিনজন পুলিশকর্মী জখম হয়েছেন। ঘাতক গাড়িটিকে আটক করেছে পুলিশ।

এদিকে প্রশাসনের  সব বিধি নিষেধ তোয়াক্কা না করায় দুর্গাপুজো শুরুর প্রথম দিন পঞ্চমীতেই হেলমেট না থাকায় প্রাণ গেল দুই বাইক আরোহী যুবকের। তবে হেলমেট মাথায় থাকায় প্রাণে বেঁচে গেলেন ওই বাইকের চালক। তিনজনের সওয়ারি বাইকটি একটি ল্যাম্প পোস্টে ধাক্কা মেরেছিল। ঘটনাস্থলেই মারা গিয়েছিলেন দুজন।  মাথায় গুরুতর চোট লাগায় তাদের মৃত্যু হয়েছে বর্ধমান মেডিকেলের ডাক্তারেরা জানিয়েছেন।  পুজোর মাঝে আরো কয়েকটি ছোটো খাটো দুর্ঘটনায় জখম হয়ে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে ভরতি হয়েছেন।

Leave a Reply