শক্তিশালী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠলো দার্জিলিং

এবি ওয়েব ডেক্স, দার্জিলিং :  শক্তিশালী বিস্ফোরনে কেপে উঠলো দার্জিলিং। মাঝরাতে দার্জিলিং এর সুপার মার্কেটে এই  বিস্ফোরণের ফলে 8 ইঞ্চি ব্যাসার্ধ বিশিষ্ট গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বিস্ফোরএর ফলে কেপে ওঠে আশেপাশের এলাকা। ঘটনার পরেই এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকেরা।পুলিশের প্রাথমিক অনুমান   যে পরিকল্পনা করেই এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। দার্জিলিং জেলা পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের পরে জেনেছে রাত প্রায় বারোটা বেজে দুই মিনিটে স্থানীয় মানুষেরা এই  বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পায়। বিস্ফোরনের  তীব্রতা  এতটাই বেশি ছিল একাধিক দোকান ও স্থানীয় কিছু হোটেল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসি পুলিশ বাহিনী পুলিশ।  ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ বেশ কিছু লোহার   টুকরো পেয়েছে  যেগুলি সপ্লিন্টার হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল।  বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে এই ছোট ছোট টুকরো গুলো টুকরোগুলো বেশকিছু হোটেলের জানালার কাচ ভেঙে দিয়েছে এমন কি এমনকি বন্ধ থাকা দোকানের শাটার ভেদ করে দোকানে ঢুকে যায়। কিন্তু বিস্ফোরনের পরে এলাকায় তন্ন তন্ন করে খুঁজেও পুলিশ কারও সন্ধান পায়নি তবে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে লোহার টুকরো ও বিয়ারিং।  ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটা লম্বা তারও। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান খুব সম্ভবত আই ই ডি দিয়েই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। মনে করা হচ্ছে বসে কোন জায়গা থেকে বসে  তারের সাহায্যে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে।

ইতিমধ্যেই সিআইডির গোয়েন্দা ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে।  আনা হবে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ দলকেও।  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সেখান থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তদন্তের পরে তারা বলতে পারবেন এ ধরনের কি ধরনের বিস্ফোরক সেখানে ব্যবহার করা হয়েছিল তবে যে ধরনের বিস্ফোরক ই ব্যবহার করা হোক না কেন এই যে ১৬  মিলিমিটার লোহার টুকরো ও লোহার বিয়ারিং পাওয়া গেছে   সেখান থেকে সহজেই অনুমেয় উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন বিস্ফোরক এখানে ব্যবহার করা হয়েছিল। তবে  কারা কি উদ্দেশ্যে এই বিস্ফোরক ব্যবহার করলো খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ইতিমধ্যেই বিস্ফোরণ স্থলকে ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে।